ঢাকায় দাওয়াত ইসলামীর উদ্যোগে ৪ মার্চ ৩দিনব্যাপী সুন্নাতে ভরা ইজতিমা শুরু

ধর্ম শিরোনাম
জায়েদুল হক ডালিম: মার্চ মাসের ০৪.০৫.ও ০৬ তারিখ ২০২০ সাল। রোজ বুধবার বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার।০৮ ০৯ ও ১০ রজব ১৪৪১ হিজরী। বুধবার সকাল দশটা থেকে ইজতেমা শুরু হবে। ইজতেমার বিশেষ পর্ব শুরু হবে শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে। বয়ান, জিকির, তাসাউরে মাদিনা, মিলাদ কিয়াম, দোয়া এরপর জুমার নামাজ আদায়।
ইজতেমার শেষে আশেকানে রাসুল মাদানী কাফেলা সফর করবেন।স্থান হজ ক্যাম্প সংলগ্ন সিভিল এভিয়েশন ময়দান, এয়ারপোর্ট ঢাকা। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা হাজারো হাজারো লাখো লাখো মুসল্লিদের আশেকানে রাসুলের সমাগম হবে ঐ ইজতেমা ময়দানে।
ইজতেমা চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি ইজতেমা নিয়ে চলছে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা। বাংলাদেশের সারা প্রান্তে চলতেছে ইজতেমার জন্য দাওয়াত। ইজতেমা শেষে হাজার হাজার যুবক ভাই, এবং বয়স্ক ভাইদের দিল পরিবর্তন হয়ে যায়। তারা দুনিয়ার খারাপ কাজ কর্ম ত্যাগ করে নতুন করে তওবা করে ইসলামিক সঠিক পথে জড়িয়ে পড়ে। দাওয়াত ইসলামীর এটাই মূল উদ্দেশ্য আগে আমি নিজে সংশোধন হয়ে সারা পৃথিবীর মানুষকে সংশোধন করার চেষ্টা এটাই দাওয়াত ইসলামীর লক্ষ্য।
দাওয়াত ইসলামী কি? আসুন আমরা দাওয়াত ইসলামী বিষয়ে বিস্তারিত বিষয়ে কিছু পরিচয় জেনে নি।
দাওয়াত ইসলামীপ্রতিষ্ঠাতা। শায়খে তরিকত, আমিরে আহলে সুন্নাত, হযরত আল্লামা মাওলানা আবু বিল্লাল মোহাম্মদ ইলিয়াস আক্তার কাদেরী রযবী, বরকতমুল আলিয়া। তাবলীগে কুরআন ও সুন্নাতের বিশ্বব্যাপী দাওয়াত ইসলামী একটি অরাজনৈতিক সংগঠন। পৃথিবীতে প্রায় ১০৬ টি বিভাগে কাজ করতেছে। যেমন জামিয়াতুল মাদিনা প্রায় ৬১৬টি দুনিয়াবী পড়াশোনার পাশাপাশি বাংলা ইংরেজি আরো বিভিন্ন বিষয়ে পড়ানো হয়। পাশাপাশি ইসলামিক ইউনিভার্সিটি হিসেবে কাজ করছে। বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন রাষ্ট্রের রয়েছে। বাংলাদেশ, ইন্ডিয়া, ইউক্রেন, সোমালিয়া, কেনিয়া, পাকিস্তান, সহ আরো বিভিন্ন দেশে রয়েছে। মাদরাসাতুল মদিনা প্রায় ২,৮০০ দুই হাজার আটশত এর বেশি মাদরাসাতুল মদিনা রয়েছে।
বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে রয়েছে। বাংলাদেশের যেমন।কাঠগর চট্টগ্রাম আনোয়ারা চট্টগ্রাম, সৈয়দপুর, দিনাজপুর, মুন্সিগঞ্জ সহ বাংলাদেশের আরো বিভিন্ন জেলায় রয়েছে। মাদ্রাসাগুলোতে রয়েছে ছোট ছোট ছেলে, ছোট ছোট মেয়ে, বিনা বেতনে তারা লেখাপড়া করার সুযোগ পাচ্ছে।
এ পর্যন্ত প্রায় সারা পৃথিবী থেকে ৮০,০০০ আশি হাজারেরও অধিক হাফেজ হয়েছে। ২,৪১,০০০ দুই লক্ষ, একচল্লিশ হাজার ছোট ছেলে মেয়ে নাজেরানা পড়া শেষ করেছে। বর্তমানে প্রায় ১,৩৩,০০০ এক লক্ষ তেত্রিশ হাজার ছোট ছেলে মেয়ে বিনা বেতনে লেখাপড়া করার সুযোগ পাচ্ছে। খাদ্দামুল মসজিদ প্রতিবছর প্রায় ৬০০ টির মতো মসজিদ নির্মাণের পরিকল্পনা করে থাকে দাওয়াত ইসলামীর উদ্যোগে- আলহামদুলিল্লাহ আপনাদের সহযোগিতায় দাওয়াত ইসলামীর সকল দিনি কাজকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। মাদরাসাতুল মদিনা অনলাইন, এখানে প্রায় ১০,০০০ দশ হাজারেরও বেশি ছাত্র পৃথিবীর প্রায় ৭০ টি দেশ থেকে কুরআন শরিফ শিখছে এতে প্রায় ৩০ টি কোর্স রয়েছে। দাওয়াত ইসলামী মিডিয়া দিক থেকে অনেক এগিয়ে। তাদের যে মাদানী চ্যানেল রয়েছে, প্রায় ৭ টি স্যাটেলাইটের মাধ্যমে মাদানী চ্যানেল টি বাংলাদেশসহ পৃথিবীর প্রায় ২০০টিরও বেশি দেশে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এই মাদানী চ্যানেল দেখে অনেক অমুসলিম মুসলমান হয়ে গেছে। দাওয়াত ইসলামীর প্রতিষ্ঠাতা আমির আহলে সুন্নাতের তার বক্তব্য শুনে সারাবিশ্বে হাজারো হাজারো লাখো লাখো যুবক ভাইয়েরা এবং যারা মাদানী চ্যানেল দেখে যে ইসলামী বোনেরা তারা দুনিয়াবী খারাপ কাজকর্মকে ত্যাগ করে। এখন তারা ভুল বুঝতে পারে ইসলামী ভাইয়েরা পঁাচ ওয়াক্ত নামায পড়তেছে এবং ইসলামী সঠিক পথে চলাফেরা করতেছে। এবং অনেক ইসলামী বোনেরা পর্দা করতে শিখেছে বাবা মায়ের বাধ্য সন্তান হয়েছে। আমির আহলে সুন্নাতের দোয়ার বরকতে আমাদের সকল ইসলামী ভাইদের ইসলামী বোনদের নেক হায়াত দান করুন আমিন।
পোস্টটি শেয়ার করুন