কানাডায় বজ্রপাতে আরও ১৩০ স্থানে দাবানল

শিরোনাম

কানাডায় চলমান তাপপ্রবাহের মধ্যে বজ্রপাতে আরও ১৩০টি স্থানে নতুন করে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। বিশেষ করে কানাডার পশ্চিমাঞ্চলের ব্রিটিশ কলম্বিয়া অঙ্গরাজ্যে এসব দাবদাহ ছড়িয়ে পড়ছে। এ পরিস্থিতিতে কানাডার কেন্দ্রীয় সরকার বলছে, আগুন নেভাতে যারা কাজ করছেন, তাদের সহায়তায় সামরিক বিমান পাঠানো হবে। শনিবার বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

এ সপ্তাহের শুরুতে দাবানলের কারণে ব্রিটিশ কলম্বিয়ার লাইটনের গ্রামাঞ্চলের বহু লোক এলাকা ছেড়ে অন্যত্র সরে গেছেন। গত সপ্তাহে এ লাইটনেই ৪৯ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়, যা কানাডার ইতিহাসে সর্বোচ্চ। এর আগে কখনোই দেশটিতে ৪৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের উপরে তাপমাত্রা উঠেনি।

এ তাপমাত্রার সঙ্গে সম্প্রতি যুক্ত হয় দাবানল। গত বুধবার সন্ধ্যায় এ দাবানলের কারণে লাইটনের আড়াইশ’ পরিবার তাদের বাড়িঘর রেখে অন্যত্র আশ্রয় নেয়। দাবানলের ভয়াবহতা বর্ণনা করতে গিয়ে লাইটনের মেয়র জেন পোল্ডারম্যান বলেন, ‘১৫ মিনিটের মধ্যে পুরো (লাইটন) শহর ধুয়ায় ছেয়ে গেলো।’

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ ধরণের তাপপ্রবাহের পেছনে জলবায়ু পরিবর্তন অনেকটাই দায়ী। শুক্রবার ব্রিটিশ কলম্বিয়ার দাবানল নির্বাপণের দ্বায়িত্বে থাকা ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা বলেন, আগের দিনের ১২ হাজার বজ্রপাতের ঘটনার পর তারা নতুন করে ১৩৬টি দাবানল চিহ্নিত করেছেন। ঘর ছাড়তে হতে পারে বলে ইতোমধ্যে শত শত লোককে সতর্ক করা হয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুন