সোনারগাঁয়ে বিদ্যুৎস্পর্শে নিহতের ঘটনায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

শিরোনাম সারাদেশ

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি: সোনারগাঁয়ের বৈদ্যোর বাজার এলাকায় ইউরো মেরিন শিপইয়ার্ড বিল্ডার্সে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে জাহাজ নির্মাণ প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার সামসুল ইসলাম খাঁন বুলবুল নিহতের ঘটনায় ওই কারখানা কর্তৃপক্ষকে দায়ী করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী।

বুধবার দুপুরে সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। পরে ন্যায় বিচারের দাবিতে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের বরাবর একটি স্বারকলিপি পেশ করে। মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি ইসরাত জাহান নাসরিন, কেন্দ্রীয় মহিলা যুবলীগ নেত্রী নাসরিন সুলতানা ঝরা, সোনারগাঁ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মাসুদ রানা মানিক, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য রোবায়েত হোসেন শান্ত, নিহত বুলবুলের মেজ ভাই মোঃ শারিফুল ইসলাম খাঁন শিমুল, স্ত্রী রোকসানা আক্তার রূপালী, মেয়ে রুবাইয়া ইসলাম তনিকা, সোনারগাঁ উপজেলা শ্রমিক লীগের যুগ্ম-আহবায়ক সৈয়দ মশিউর রহমান শামীম, সোনারগাঁ উপজেলা পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি আসাদুল ইসলাম আসাদ, সিঙ্গাপুর যুবলীগের সভাপতি হারুন-অর-রশিদ জয় প্রমুখ।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তরা বলেন, ইউরো মেরিন শিপইয়ার্ড বিল্ডার্স কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা ও অবহেলার কারনে সামসুল ইসলাম খাঁন বুলবুলের মৃত্যু হয়েছে। বুলবুল মারা যাওয়ার পরও কারখানা কর্তৃপক্ষ তার লাশও দেখতে যাননি। তাদের ত্রুটিপূর্ণ বৈদ্যুতিক লাইনে স্পর্শ লেগে তার মৃত্যু হয়েছে। বক্তারা বলেন, বিদ্যুৎ লাইন ত্রুটি থাকার বিষয়টি বুলবুল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন। বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ করতেও বলেছিলেন। কিন্তু তাদের লাইম্যান বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ না করে মেইন সুইচের রুম তালাবন্ধ করে দুরে কোথাও চলে গেছেন। রুমটি তালাবন্ধ না থাকলে হয়তো মেইন সুইচ বন্ধ করে তাকে বাঁচানো যেতো। মানববন্ধনে বক্তারা বুলবুলের মৃত্যুর ন্যায় বিচারের দাবি করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, বাল্কহেড ও জাহাজ নিমার্ণ করার জন্য যে নিরাপত্তা, সঠিক বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ও প্রশস্ত জায়গা থাকা দরকার তা তাদের নেই। অনেক গুলো জাহাজ ও বাল্কহেড একত্রে নিমার্ণ করার ফলে যত্রতত্র বৈদ্যুতিক তার মাটিতে পড়ে আছে এবং বৈদ্যুতিক তারগুলো বিভিন্ন জাহাজের সাথে লেগে আছে এতে করে যে কোন কারণে তারগুলো লিকেজ হলে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ নিয়ে অনেক শ্রমিক ক্ষোভ প্রকাশ করেন। মানববন্ধন শেষে নিহত বুলবুলের মৃত্যুর ন্যায় বিচার পাওয়ার লক্ষ্যে নিহতের মেজ ভাই শারিফুল ইসলাম খাঁন শিমুলের স্বাক্ষরিত একটি স্বাকলিপি সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসকের বরাবর পেশ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বাল্কহেড নির্মাণ কাজের তদারকি করতে গিয়ে ত্রুটিপূর্ণ বিদ্যুৎ লাইন থেকে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে আহত হয়ে জাহাজ নির্মান প্রতিষ্ঠান সাফা এন্টার প্রাইজ এর ম্যানেজার বুলবুল মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। স্থানীয়রা বুলবুলকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব অবহেলা ও গাফিলতিতে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

পোস্টটি শেয়ার করুন