নাইমা বেঁচে গেলেও সন্ধান মিলছেনা সঙ্গে থাকা মা ও দাদির

বাংলাদেশ শিরোনাম

 

সামাজিক যেগাযোগ মাধ্যমে ছবি প্রকাশের পর শিশুটির নাম জানাজায় নাইমা তার অভিভাবকের সন্ধান পাওয়া গেছে।  তার চাচা মানিকের সাথে সাংবাদিকদের কথা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মর্মান্তিক দুটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৭ জন নিহত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। এদিকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধারকৃত আহতদের মধ্যে একটি শিশু কন্যাও রয়েছে। তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আতঙ্কগ্রস্থ শিশুটি নিজের নাম বলতে পারছিল না।

শিশু নাইমার চাচা মানিক জানিয়েছেন, তিনি ঢাকা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন। শিশু নাইমাকে নিয়ে সিলেট থেকে তার মা কাকলী ও দাদী উদয়ন এক্সপ্রেসে করে চাঁদপুরে ফিরছিলেন। পথে দুর্ঘটনার শিকার হয় তাদের ট্রেন।

মানিক জানান, নাইমার বাবা মাইনুদ্দিনও দুর্ঘটনার খবর পেয়ে চাঁদপুর থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দিকে রওয়ানা দিয়েছেন। কিন্তু তারা কেউই নাইমার মায়ের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করতে পারছেন না। নাইমার মা ও দাদি কী অবস্থায় আছেন কিছুই জানতে পারছেন না তারা।

পোস্টটি শেয়ার করুন